Title: প্রায় কোটি টাকা খরচ করে এভারেস্টে উঠছে ঢাকার লোকজন, ইনভেস্টর কারা?

ব্লগে পত্রিকায় শুনি দেশে নাকি টাকা নেই। যদিও ঢাকার যেকোন বাজারে গেলে তা মনে হয় না। বিএনপি ধুয়ো তুলেছিল জানুয়ারী থেকে সরকারী কর্মচারীদের বেতন হবে না (তবে কর্মকর্তারা পাবে!), প্রথমআলোর আনিসুল লিখলেন সব টাকা নিয়ে গেছে আবুল হোসেন, একারনে উনি প্রাইভেট টিভি চ্যানেল থেকে টাকা তুলতে পারছেন না, ওনার পঞ্চম এবং ষষ্ঠ এপার্টমেন্টের কিস্তির টাকা বাকি পড়ে গেছে। এমনকি গতকালও শুনলাম বিএনপির মাহমুদুর রহমান নাকি বলেছে টাকার অভাবে সরকার গোপনে পলিটেকনিকের ইঞ্জিনিয়ারদের দ্বিতীয় থেকে থার্ড ক্লাস সরকারী কর্মচারীতে নামিয়ে দিয়েছে, এবং বেশ কৌশলে এই গুজবটি ছড়িয়ে দেশব্যাপি সাড়ে চার লক্ষ পলিটেকনিকে রাস্তায় নামানো হয়েছে। এই আন্দোলনের কারনে আগারগায়ে রাস্তায় যখন ব্যাপক যানজট, র্যাবের একটি গাড়ী উল্টো লেন দিয়ে সাইরেন বাজিয়ে দ্রুতগতিতে পরিস্থিতি সামাল দিতে যাচ্ছিল ঠিক সে সময় ট্রান্সকমের টাকায় কেনা মটরসাইকেল নিয়ে প্রথমআলোর এক সাংবাদিক ব্যাক্তিগত কাজে মিরপুর যাচ্ছিল, র্যাবের গাড়ী রাস্তা ফাকা করে যাচ্ছে দেখে ওই লোকও গাড়ীর পিছু নেয়, বিনা অনুমতিতে (ওনার ধারনা উনি সাংবাদিক সুতরাং দুচারটা বেআইনি কাজ করলে সমস্যা নেই, পলিটেকনিক কভার করা তার এসাইনমেন্টেও ছিল না), এখন পুলিশ তাকে চ্যালেঞ্জ করায় খবর বানিয়ে হেডলাইনে। যাহোক মূল কথায় আসি, আজ প্রথমআলোয় লিখেছেন দ্বিতীয়া রমনী হিসেবে আশফিয়া আজ এভারেস্ট শৃঙ্গারে উঠেছেন। বাংলাদেশের জন্য সাফল্য অবশ্যই, বিশেষ করে ওনারা অন্তত ছবি পাঠাচ্ছেন, মুসা ইব্রাহিমের ছবি নিয়ে সেবার ঝামেলা হয়েছিল। সমস্যা হচ্ছে সত্তুর থেকে আশি লক্ষ টাকা খরচ করে বারবার এভারেস্টে যাওয়ার টাকা পচ্ছি কোথায় যেখানে পয়সার অভাবে দেশে ত্রাহী ত্রাহী অবস্থা। পর্বত টিমেরই এক সদস্য সম্প্রতি অন্য জায়গায় কথা প্রসঙ্গে বলেছেন এভারেস্টের ট্রেনিং সহ সব আনুষাঙ্গিক খরচ যোগ করলে কোটি ছাড়িয়ে যাবে। এর মধ্যে চারজন পাচবার উঠেছেন, মুহিত দুইবার, আরো আধা ডজন পয়সা ঢেলেও উঠতে পারে নি। বলা বাহুল্য নেপালে বাংলাদেশী টাকা চলে না, উনাদের এভারেস্ট ভ্যাকেশনের বিল পুরোটা দিতে হচ্ছে সৌদিতে লাথিগুতা খেয়ে মরা বাংগালী শ্রমিকদের পাঠানো ডলার রিয়ালে।
Comments
Write Comment
Leave your valued comment. Sign Up


TS Management System