Title: পূজোয় শারদীয় সাজ

শারদীয় দুর্গা পূজার উৎসবের আয়োজন চারদিকে। সার্বজনীন এই উৎসব ঘিরে আমাদের পরিকল্পনা-প্রস্তুতি এরই মধ্যে শেষ। এবার পালা পরিকল্পনার বাস্তবায়ন।

দুর্গা পূজায় ঘুরে ঘুরে বিভিন্ন মন্ডপে পূজা দেখা, বাড়িতে অতিথি আপ্যায়ন, আত্মীয়-বন্ধুর নিমন্ত্রণ রক্ষা, সব জায়গায়ই নিজেকে সুন্দর ও আর্কষণীয় করে উপস্থাপন করতে চাই আমরা। কেমন করে সাজবেন বিশেষ এই দিনগুলোতে?

দিনের সাজ:
প্রকৃতিতে এখনো বেশ গরম। তাই পূজায় দিনের বেলায় হালকা সাজে বের হতে চাইলে সুতি শাড়ি বা সালোয়ার-কামিজ পরুন। ত্বকের রঙের সঙ্গে মিলিয়ে মুখে, গলায় ও ঘাড়ে ফাউন্ডেশন হালকা করে লাগিয়ে নিন। এর ওপরে আলতো করে পাউডার এবং সামান্য বেজ কম্প্যাক্ট বুলিয়ে নিন। চোখের পুরোটা পাতায় আইশ্যাডো লাগান। চোখের উপরের পাতায় আইলাইনার দিয়ে লাইন টেনে নিন। দুই গালে ব্লাসন বুলিয়ে দিন। পোশাকের রঙ-এর সঙ্গে মিলিয়ে লিপস্টিক বা লিপস্টিকের বদলে লাগান লিপগ্লস। আগেই চুল সেট করে নিন। বড় চুলে খোপা করে ফুল দিতে পারেন। আর ছোট চুল হলে ব্লো ডাই করে খুলে রাখুন। সঙ্গে ওয়েট টিসু রাখুন। মাঝে মাঝে ওয়েট টিসু দিয়ে মুখ মুছে নিন। গরমের ক্লান্তি দূর হবে আর আপনাকে অনেক বেশি সময় দেখাবে স্নিগ্ধ ও সতেজ।


রাতের সাজ:
রাতে বাইরে যাওয়ার সময় জমকালো সাজেই ভালো লাগবে। বেছে নিতে পারেন চওড়া পাড়ের কাতান শাড়ি। সঙ্গে সোনা বা রুপার গয়না। হাত ভর্তি চুড়ি। আর যেভাবে সাজবেন:
মুখ ক্লিন করে টোনিং করে নিন। ওয়াটার বেজড্ ফাউন্ডেশন ভালোভাবে করে মুখে, গলায় ও ঘাড়ে লাগিয়ে ভালো করে ব্লেন্ড করে নিন। এর ওপরে কম্প্যাক্ট পাউডার দিন। শাড়ির সঙ্গে মিলিয়ে চোখে গাঢ় রঙ-এর শ্যাডো লাগিয়ে নিন। চোখের নিচে কাজল দিন। চোখের উপরের পাতায় আইলাইনার দিয়ে মোটা করে লাইন টেনে নিন। দুই বার করে মাশকারা লাগান। ঠোঁট এঁকে গাঢ় রঙের লিপস্টিক লাগিয়ে নিন। শাড়ি পরলে মানানসই টিপ লাগিয়ে নিতে পারেন। পূজা দেখার সময় অনেক হাঁটতে হয় সাজের সঙ্গে মিলিয়ে আরামদায়ক স্যান্ডেল পরুন। এক্ষেত্রে নতুন জুতা না পরাই ভালো। কেননা নতুন জুতায় পায়ে ফোসকা পড়তে পারে।

এতো গেল মেয়েদের সাজ। পূজায় ছেলেরা পাঞ্জাবি এবং ধুতি পরতে পারেন। সঙ্গে কলাপুরি জুতা। ইচ্ছা করলে কপালে চন্দনের তিলক পরুন।
Comments
Write Comment
Leave your valued comment. Sign Up


TS Management System