Title: ফেসবুক একাউন্ট হ্যাকিং এর কবল থেকে বাঁচতে কয়েকটি সাধারন পদ্ধতি

আপনারা ইতিমধ্যেই অবগত আছেন যে বিগত কয়েকদিনে বিভিন্ন ব্লগসাইটে বা সোশ্যাল ওয়েবসাইটে ফেসবুক একাউন্ট হ্যাকিং এর খবর শোনা যাচ্ছে। হ্যাকার রা খুব চালাকির সাথে এসব হ্যাকিংয়ের কাজ করে যাচ্ছে। এর ফলে তারা হাতিয়ে নিচ্ছে বিভিন্ন ব্যাক্তিগত তথ্য। কিন্তু, একটু সাবধানতা অবলম্বন করলেই আপনি এধরনের হ্যাকার এর ফাঁদ থেকে মুক্তি পেতে পারেন।

নিচে কিছু পদ্ধতি সম্পর্কে আলোচনা করব।
জটিল পাসওয়ার্ড ব্যবহার করুন

নিজের ব্যবহৃত পাসওয়ার্ড সম্পর্কে সাবধান হোন। নিজের নাম, পরিবারের নাম, কিংবা নিজের জন্মদিন কিংবা মোবাইল নম্বর ব্যবহার করবেন না। জটিল কিছু শব্দগুচ্ছ ব্যবহার করুন। capital এবং lowercase শব্দ ব্যবহার করতে পারেন। এর মাঝে ঢুকিয়ে দিতে পারেন ১-৯ এর মধ্যে কিছু সংখ্যা। পাসওয়ার্ড যত ছোট হবে হ্যাকিং এর সম্ভাবনাও তত বেড়ে যাবে। তাই পাসওয়ার্ড এর সংখ্যা ৬ এর অধিক যেমন ৮, ৯, ১২ হলে ভাল হয়। যদি পাসওয়ার্ড মনে রাখতে সমস্যা হয় তবে এমন কিছু শব্দসমষ্টি ব্যবহার করুন যা কেবল আপনি এবং খুব কম সংখ্যক বন্ধুরা জানেন। অথবা কোন নিরাপদ স্থানে পাসওয়ার্ডটি লিখে রাখুন।

নিয়মিত পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করুন

কয়েক সপ্তাহ বা ১-২ মাস পরপর পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করুন। পাসওয়ার্ড ভুলে গেলে ফেসবুকের “Forgot password?” অপশনটি ব্যবহার করুন।

ব্যাক্তিগত তথ্য প্রদানের ব্যাপারে মিতব্যায়ী হোন

এর অর্থ হলো এমন কোন তথ্য প্রোফাইল ইনফো তে ব্যবহার করবেন না যা আপনার ইমেইল অথবা ফেসবুক একাউন্ট এর পাসওয়ার্ডের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ। এসব সাইটে ব্যাক্তিগত তথ্য যত কম প্রদান করবেন ততই আপনি সুরক্ষিত।

যাকে তাকে ফ্রেন্ড বানানো থেকে বিরত থাকুন

এমন অনেক ব্যবহারকারী আছেন যারা প্রোফাইল ছবি দেখেই ফ্রেন্ড লিস্টে এড করে বসেন। কোন অপরিচিত রিকোয়েস্ট এলে তাদের ইনফো আগে যাচাই করে নিন। দেখুন তার ফ্রেন্ডলিস্টের সংখ্যা কেমন। তার অন্যান্য ইনফো সঠিক কিনা দেখুন। তাছাড়া আপনাদের মাঝে কোন ফ্রেন্ড কমন আছে কিনা তাও দেখে নিন। তারপর স্বীদ্ধান্ত নিন। এমন কাউকে লিস্টে যুক্ত করবেন না যাদের প্রোফাইল ছবি পর্যন্ত নেই।

না জেনে কোন লিঙ্ক এ ক্লিক করবেন না

এমন অনেক ফিশিং এয়েবসাইটের সন্ধান পাওয়া গেছে যারা ব্যবহারকারীদের ভুল ইনফো দিয়ে একটি ওয়েব লিঙ্ক প্রদান করে। সাবধান!

এসব লিঙ্ক এ ক্লিক করার আগে এপলিকেশনটির Terms and Condition পড়ে নিন। কোন বন্ধুও যদি আপনাকে এধরনের লিঙ্ক এ ক্লিক করার রিকোয়েস্ট পাঠিয়ে থাকে তবে তা ফিশিং ওয়েবসাইট কিনা তা যাচাই করে নিন।

মনে রাখবেন, ফেসবুক বা ফেসবুকের কোন এপলিকেশন আপনার ফেসবুকের বা ইমেইল এর পাসওয়ার্ড চাইবে না।

Website Phishing সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন এখানে

ইমেইল চেকিং এ সাবধানতা অবলম্বন করুন

হ্যকার রা এখন ফেসবুক হ্যাকিং এর ক্ষেত্রে ইমেইল কে বেছে নিয়েছে। কোন ওয়েব সার্ভিস আপনার কাছে ব্যাক্তিগত তথ্য চাইবে না। যেমন ফেসবুক কখনোই আপনাকে পাসওয়ার্ড পরিবর্তনের কোন নোটিশ ইমেইল করবেনা অথবা ব্যাক্তিগত তথ্য হালনাগাদের অজুহাত দিবে না। যদি এরকম কিছুর প্রয়োজন পড়েই তবে ফেসবুক আপনাকে হোমপেজ অথবা আপনার setting এ গিয়ে পরিবর্তনের জন্য বলবে। তাই কোন ইমেইল থেকে প্রাপ্ত Offer যাচাই না করেই তথ্য দিয়ে বসে থাকবেন না।

ইমেইল পাসওয়ার্ড হালনাগাদ রাখুন

এর অর্থ হচ্ছে আপনি যে ইমেইল দিয়ে আপনার ফেসবুকে লগ ইন করে থাকেন, সেই ইমেইল এর পাসওয়ার্ড নিয়মিত হালনাগাদ রাখুন। তা নাহলে আপনার ইমেইল একাউন্ট হ্যাকিং হলে আপনার ফেসবুক একাউন্ট ও হ্যাকিং হতে সময় লাগবে না। এ ব্যাপারে আমার পরামর্শ হচ্ছে, ফেসবুক একাউন্টের জন্য আলাদা একটি ইমেইল একাউন্ট ব্যবহার করুন। তাছাড়া “Security Question” অপশন টিতে কোন ব্যাক্তিগত তথ্য সম্বলিত উত্তর রাখবেন না।

আরও কোন পদ্ধতি আছে যা আপনি প্রয়োগ করেন আপনার ফেসবুক একাউন্ট এর সুরক্ষার জন্য? মন্তব্যের মাধ্যমে শেয়ার করুন।



1328160687_jotil.gif
Comments
Write Comment
Leave your valued comment. Sign Up


TS Management System